আর্ন্তজাতিক

কংগ্রেসে মিথ্যা : ট্রাম্পের প্রাক্তন আইনজীবীর দায় স্বীকার

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রাক্তন আইনজীবী মাইকেল কোহেন স্বীকার করেছেন যে, তিনি ২০১৬ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের সময় রাশিয়ায় ট্রাম্পের একটি সম্পত্তির চুক্তি নিয়ে মিথ্যা বলেছিলেন।

বৃহস্পতিবার কোহেন কংগ্রেসে মিথ্যা বলার দায় স্বীকার করে নিয়েছেন। তিনি জানিয়েছেন, ট্রাম্পের প্রতি বিশ্বস্ততা থেকেই তিনি এ মিথ্যা বলেছিলেন।

২০১৬ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের সময় ট্রাম্পের কথিত প্রেমিকাদের চুপ করানোর জন্য অর্থ দেওয়ার ক্ষেত্রে আর্থিক আইন লঙ্ঘনের দায়ে কোহেনের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু হয়। পর গত আগস্টে কোহেন দায় স্বীকার করে আবেদন করেন।

বৃহস্পতিবার সকালে একটি ফেডারেল বিচারকের আদালতে অপ্রত্যাশিতভাবে হাজির হয়ে কংগ্রেসে মিথ্যা বিবৃতি দেওয়ার দায় স্বীকার করেন ৫২ বছর বয়সি কোহেন।

শুনানিতে তিনি জানান, রাশিয়ার রাজধানীতে একটি গগনচুম্বী ভবন নির্মাণে ট্রাম্পের একটি সংগঠনের পরিকল্পনার ক্ষেত্রে কংগ্রেসে লিখিত মিথ্যা বিবৃতি দাখিল করেছিলেন।

প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে ‘ব্যক্তি ১’ ইঙ্গিত করে কোহেন বলেন, ‘আমি ওই মিথ্যা বিবৃতি ব্যক্তি ১ এর রাজনৈতিক বার্তায় সঙ্গতিপূর্ণ হতে এবং ব্যক্তি ১ এর প্রতি বিশ্বস্ততা থেকে দিয়েছিলাম।’

এদিকে, কোহেনের এমন দাবির পর ট্রাম্প বলেছেন, তার প্রাক্তন ডান হাত আগে নয় বরং কম শাস্তি পাওয়ার আশায় এখন কৌঁসুলিদের কাছে মিথ্যা বলছেন।

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রাশিয়ার হস্তক্ষেপ ও ডোনাল্ড ট্রাম্প এর সাথে জড়িত কি না, তা নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে তদন্ত করছে বিশেষ পরিষদ।

তথ্য : বিবিসি