আজকের সেরা সংবাদ

ইটভাটার আগুনে পুড়লো জমির ধান, মানববন্ধনে ৫ গ্রামের কৃষক

ইটভাটার আগুনে ধান পুড়ে যাওয়ায় ক্ষতিগ্রস্ত মানিকগঞ্জ সদর উপজেলার ৫ গ্রামের কৃষক তাদের ক্ষতিপূরণ ও ফসলী জমি থেকে ইটভাটা অপসারণের দাবীতে মানববন্ধন করেছেন।

মানববন্ধন শেষে তারা জেলা প্রশাসকের কাছে একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।  সোমবার বেলা আড়াইটার দিকে মানিকগঞ্জ প্রেসক্লাব প্রাঙ্গণে আয়োজিত মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন কমরেড আজাহারুল ইসলাম, কমরেড আরশেদ আলী মাস্টার ও মোস্তাফিজুর রহমান বিশ্বাস মিলনসহ অনেকে।

বক্তারা বলেন, ইটভাটার আগুনের তাপে শুকিয়ে মরে গেছে মানিকগঞ্জ সদর উপজেলার পুটাইল ও বেতিলা-মিতরা ইউনিয়ন পরিষদের ৫টি গ্রামের জমির ধান। কৃষি জমি থেকে মাটি কাটার কারণেও তাদের আবাদি জমি নষ্ট হচ্ছে।  আইরমারা গ্রামের কৃষক তোতা মিয়া বলেন, তিনি ৭ বিঘা জমি গিরবী নিয়ে সেখানে ইরির আবাদ করেছেন। এতে তার খরচ হয়েছে প্রায় এক লাখ টাকা।

কিন্তু ইটভাটার আগুনের তাপে তার সব জমির ধান মরে গেছে। তিনি সরকারের কাছে এর ক্ষতিপূরণ চান। সোলন্ডি গ্রামের কৃষক মো. ইসমত আলী বলেন, শনিবার (৪ মে) ডায়না ব্রিক্স কোম্পানি ইট পোড়ানোর মৌসুম শেষে চিমনীর আগুণ নেভানোর সময় ওই এলাকার ইরি প্রজেক্টের ৫শ বিঘা জমির ধান পুড়ে গেছে।

গোকুলনগর গ্রামের কৃষক আলী আকবর বলেন, দীর্ঘদিন ধরে তারা ফসলী জমি থেকে ইটভাটা অপসারণের কথা বলে আসছেন। কিন্তু তাতে লাভ হয়নি। তারা অবিলম্বে কৃষকদের ক্ষতিপূরণ এবং আবাদি জমি থেকে ইটভাটা অপসারণের জোর দাবী জানিয়েছেন।

এ ব্যাপারে জেলা প্রশাসক এস এম ফেরদৌস বলেন, তিনি অভিযোগ পাওয়ার পর মানিকগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও কৃষি কর্মকর্তাকে দ্রুত তদন্তপূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নিতে বলেছেন।