লাইফস্টাইল

ইউরিন ইনফেকশন দূরে রাখুন মাত্র একটি কাজে

অনেক নারীই যন্ত্রণাদায়ক একটি সমস্যায় ভোগেন, তা হলো ইউরিন ইনফেকশন। ইউরিন ইনফেকশন একবার দূর হলেও তা বারবার ফিরে আসতে পারে। অনেকেই তা দূরে রাখতে বিভিন্ন ওষুধ খান, ঘরোয়া প্রতিকারের চেষ্টা করেন এমনকি ব্যায়ামের সাহায্যও নেন। কিন্ত একটি গবেষণা বলছে, খুব সাধারণ একটি কাজেই ইউরিন ইনফেকশনের ঝুঁকি কমাতে পারেন নারীরা। আর তা হলো ছয় গ্লাস পানি বেশি পান করা।

যুক্তরাষ্ট্রের মিয়ামি স্কুল অব মেডিসিনের এই গবেষণার সাথে যুক্ত ছিলেন। এই গবেষণার ফলাফল প্রকাশিত হয় জেএএমএ ইন্টারনাল মেডিসিন জার্নালে। এতে বলা হয়, দৈনিক সচরাচর যতটা পানি পান করা হয় তার চেয়েও ৬ গ্লাস বেশি পানি, মোট দেড় লিটার পানি বেশি পান করলে ইউরিন ইনফেকশনের ঝুঁকি অর্ধেকে নামিয়ে আসা সম্ভব হয়।

গবেষকরা আগেই জানতেন যে বেশি পানি পান করাটা ইউরিন ইনফেকশনের ঝুঁকি কমাতে পারে। কিন্তু ঠিক কী পরিমাণে পানি পান করলে ঝুঁকি কমে তা নিয়ে এভাবে গবেষণা হয়নি আগে। গবেষণার লেখক ড. টমাস হুটন জানান, ইউরিন ইনফেকশনের সমস্যাটি এড়াতে নিরাপদ ও সহজ একটি উপায় হল বেশি করে পানি পান।

৬০ শতাংশ নারীর জীবনে কোনো না কোনো সময়ে ইউরিন ইনফেকশন বা ইউটিআই হয়ে থাকে, আর ২৫ শতাংশ নারীর একাধিকবার এই ইনফেকশন হতে পারে। পুরুষের তুলনায় নারীর ইউরিন ইনফেকশন বেশি হবার কারণ হলো, নারীদের মুত্রনালী খাটো, ফলে ব্যাকটেরিয়া সহজেই ব্লাডারে চলে যেতে পারে।

এই গবেষণায় ৪৫ বছরের কম বয়সী ১৪০ জন নারী অংশগ্রহণ করেন। তাদের সবারই বিগত এক বছরে তিনবার বা তারও বেশি ইউরিন ইনফেকশন হয়েছিল। তারা সাধারণত ছয় গ্লাস বা তারও কম পানি পান করে থাকেন প্রতিদিন। গবেষণার জন্য তাদের অর্ধেককে বলা হয়, দিনে আরও ছয় গ্লাস অর্থাৎ মোট ১২ গ্লাস পানি পান করতে হবে। বাকি অর্ধেককে কোনো নির্দেশনা দেওয়া হয়নি।

এক বছর পর দেখা যায়, যারা পানি বেশি পান করেন, অন্যদের তুলনায় তাদের ইউরিন ইনফেকশনের পরিমাণ কমে এসেছে অর্ধেকে।

কী কারণে বেশি পানি পান করলে ইউরিন ইনফেকশন কমে? ডাক্তাররা মনে করেন, বেশি পানি পান করলে মুত্রত্যাগ বেশি করতে হয় এবং ব্লাডার বা মুত্রথলি থেকে ব্যাকটেরিয়া দ্রুত বের হয়ে যায়। ফলে তা ইনফেকশন ঘটানোর সুযোগ পায় না। এতে ব্লাডারের ভেতরে ব্যাকটেরিয়া প্রবেশের সুযোগও পায় কম।