জাতীয়

‘আর যেন কোন রাজাকারের গাড়িতে জাতীয় পতাকা না ওঠে’

আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও শরীয়তপুর-২ আসনের দলের এমপি প্রার্থী এনামুল হক শামীমের পক্ষে ঐক্যবদ্ধ ভোট প্রচারণায় মাঠে নামছেন সংসদীয় এলাকার মুক্তিযোদ্ধারা। আজ দুপুরে নড়িয়ায় এক মতবিনিময় সভায় উপস্থিত মুক্তিযোদ্ধারা দেশের উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখা এবং শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে নৌকার প্রার্থী এনামুল হক শামীমের পক্ষে ভোটের প্রচারণায় অঙ্গিকার করেন। মুক্তিযোদ্ধাদের কল্যাণে বর্তমান সরকারের গৃহীত কর্মকান্ডের জন্য প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানান।

এসময় উপস্থিত এনামুল হক শামীম সব মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বলেন, আপনারা জাতির পিতার আহ্বানে সাড়া দিয়ে দেশ স্বাধীন করেছেন। আগামী নির্বাচনে স্বাধীনতা পক্ষের শক্তিকে ক্ষমতায় আনতে হবে। কারণ ২০২০ সালে জাতির পিতার জন্মশত বার্ষিকী এবং ২০২১ সালে বাংলাদেশের সুবর্ণজয়ন্তী। এই দুটি দিবস পালনের জন্য এবং দেশকে এগিয়ে নিতে স্বাধীনতার পক্ষের একমাত্র শক্তি আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় আনতে হবে। মুক্তিযোদ্ধাদের কল্যাণে আওয়ামী লীগ সরকার সব উদ্যোগ নিয়েছে। আগে কেউ মুক্তিযোদ্ধা পরিচয় দিতেই ভয় পেত। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মুক্তিযোদ্ধাদের সন্মানিত করেছেন। আর যেন কোন রাজাকারের গাড়িতে জাতীয় পতাকা না উঠে সেজন্য মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তিকে সজাগ থাকতে হবে।

নড়িয়া উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ড হাসিন খানের সভাপতিত্বে ও ডেপুটি কমান্ডার মজিবুর রহমান খানের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মুক্তিযোদ্ধা আ. মান্নান খান, নড়িয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাস্টার হাসানুজ্জামান খোকন, নড়িয়া পৌর মেয়র শহিদুল ইসলাম বাবু রাড়ী, উপজেলা ভাইস-চেয়ারম্যান জাকির বেপারী, মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান নাজমা মোস্তফা, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপ কমিটির সহ-সম্পাদক জহির সিকদার, সৈয়দ হেমায়েত হোসেন, আক্তারুজ্জামান জুয়েল প্রমুখ। এতে উপজেলার সকল মুক্তিযোদ্ধারা অংশগ্রহণ করেন।